চীনের শেষ সম্রাট পুয়ির ঘড়ি বিক্রি হলো ৬৭ কোটি টাকায়

চীনের শেষ সম্রাট পুয়ির মালিকানাধীন একটি হাতঘড়ি নিলামে রেকর্ড পরিমাণ দামে বিক্রি হয়েছে। ধারণা করা হয়েছিলো এটি দাম ৩ মিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে। কিন্তু ধারণার চেয়ে দ্বিগুণ দামে বিক্রি হয়েছে। হাতঘড়ি ৬২ লাখ মার্কিন ডলারে নিলামে বিক্রি হয়েছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় তা ৬৭ কোটি টাকার বেশি।

হংকংয়ে মঙ্গলবার (২৩ মে) ওই ঘড়ির নিলাম অনুষ্ঠিত হয়। ঘড়িটি সুইজারল্যান্ডের বিখ্যাত ঘড়ি নির্মাতা প্যাটেক ফিলিপের তৈরি।

নিলামকারী প্রতিষ্ঠান ফিলিপসের ঘড়ি বিভাগের এশিয়া অঞ্চলের প্রধান টমাস পেরাজি বলেন, তিনি এই যুগান্তকারী নিলামে রোমাঞ্চিত। কারণ, ঘড়ি বিক্রিতে এতো দামের দিক থেকে এটিই সর্বোচ্চ রেকর্ড।

এই ঘড়ির এই দাম শুনে অনেকে হতবাক হতে পারেন। তবে চিন্তার বিষয় এটাই যে, কেনো এই ঘড়ির এতো দাম! একে তো সেটি সুইজারল্যান্ডের বিখ্যাত ঘড়ি নির্মাতা প্যাটেক ফিলিপের তৈরি। এই মডেলের ঘড়ি বিশ্বে মাত্র আটটি রয়েছে বলে ধারণা করা হয়। তা ছাড়া সেটির সঙ্গে মিশে আছে প্রায় ৮৬ বছরের ইতিহাস।

ফিলিপস নিলাম হাউস জানিয়েছে, চীনের শেষ সম্রাট পুয়ির এই ঘড়িটির যা ইতিহাস রয়েছে তাতে এর দাম আরও বেশি হওয়া উচিত ছিল। ৮৬ বছর বয়সী এই ঘড়িটি পাঁচ বছর সাইবেরিয়াতেও ছিল। চীনের সাবেক এই শাসক সোভিয়েত ইউনিয়নের ওই অঞ্চলে পাঁচ বছর ছিলেন। নিলাম হাউস ফিলিপস জানিয়েছে, সোভিয়েত ইউনিয়ন কর্তৃক বন্দি হওয়ার সময় পুই তার রাশিয়ান দোভাষীকে এ ঘড়িটি উপহার দিয়েছিলেন।

১৯৫০ সালের দিকে সম্রাটকে চীনে ফেরত পাঠানো হয়। ওই সময় এ ঘড়িটিই পরতেন পুই। ঘড়িটি ১.২ ইঞ্চি ব্যাসের এবং এটি তৈরিতে প্ল্যাটিনাম ব্যবহার করা হয়েছে। এর ডায়ালগুলো লেখা হয়েছে আরবি সংখ্যায়। এছাড়া এই ঘড়ি দিয়ে পৃথিবীর অবস্থান অনুযায়ী চাঁদের অবস্থান জানা যেতো। পুই কীভাবে এই ঘড়িটি কিনেছিলেন বা পেয়েছিলেন তা জানা যায়নি। যদিও রেকর্ডগুলি দেখায় যে এটি প্রাথমিকভাবে প্যারিসের একটি বিলাসবহুল দোকান থেকে বিক্রি হয়েছিল।

নিলামকারী প্রতিষ্ঠান ফিলিপসের ঘড়ি বিভাগের এশিয়া অঞ্চলের প্রধান টমাস পেরাজি এক বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘দামের ক্ষেত্রে এটি রেকর্ড করেছে। হাতঘড়ির ক্ষেত্রে এর দাম সর্বোচ্চ ছিল। প্যাটেক ফিলিপের তৈরি এই মডেলের (রেফারেন্স ৯৬) আর কোনো ঘড়ি এত দামে আগে কখনও বিক্রি হয়নি।’

সূত্র : আলজাজিরা

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker