মহাকাশে হীরার গ্রহ!

মহাকাশে হীরার গ্রহ! খুব অবাক লাগছে তাইনা? আসলেই অবাক হবার মতো’ই এক কথা। তাহলে চলুন মহাকাশে হীরার গ্রহ ব্যাপার নিয়ে কিছু আলোচনা করা যাক।

হীরে, যেটি আমাদের পৃথিবীতে অনেক মূল্যবান একটি বস্তু। যার চাহিদাও ব্যাপক। এটি এতটাই দামি ও মূল্যবান যা একটি সাধারণ মানুষের জন্য ক্রয় করা অনেক কষ্ট সাধক। পৃথিবীর ভূ-অভ্যন্তরে ১৪০ থেকে ১৯০ কি:মি: নিচে পৃথিবীর কেন্দ্রে O এর আবরনের মাঝে প্রচন্ড তাপ ও চাপের কারনে গঠিত হতে প্রায় ১ থেকে ৩.৩ মিলিয়ন বছর সময় লাগে বলে বৈজ্ঞানিকদের ধারণা। পৃথিবীতে প্রতি বছর খনি ছিরে প্রায় ২৬০০০ কেজি হীরে উত্তোলিত হয়, যার মূল্য প্রায় ১০ মিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ এটি কি বুঝতেই পারছেন। হীরে কতটা মূল্যবান বস্তু। আর এই মহা মূল্যবান বস্তুকে কে না‌ পেতে চায়।আর এমন যদি হতে যে, একটা আস্তো হীরের গ্রহের সন্ধান পাওয়া যেতো? তাহলেতো আর কোনো কথাই নেই। হ্যাঁ, এমনি একটি গ্রহ আছে মহাকাশে। তাও আবার পৃথিবী‌ থেকে ২ গুন বড়। যার সন্ধান পাওয়া গেছে ২০০৪ সালে।যার নাম 55 Cancri E, যাকে একটি হীরের গ্রহ বলা হয়। এটি পৃথিবী থেকে প্রায় দ্বিগুণ বড়।আর এটির ভর পৃথিবী থেকে ৮.৬৩ গুন বেশি। এর তাপমাত্রা ১৬৪৮° সেলসিয়াস। ধারনা করা হয় এই গ্রহতে প্রচুর পরিমাণে কার্বন রয়েছে। এবং এখানে কার্বনের ঘনত্ব প্রচন্ড বেশি। এতটাই বেশি যে, বৃহস্পতি গ্রহের চেয়ে ২০ গুন বেশি। উচ্চ চাপ ও তাপমাত্রার কারণে গ্রহের কার্বন হীরেতে পরিণত হয়েছে। বলে রাখা ভালো যে,কার্বন উচ্চ চাপ ও তাপমাত্রার কারণে হীরায় রূপান্তরিত হয়। এই গ্রহ 55 Cancri A নামক নক্ষত্রকে প্রদক্ষিন করে চলেছে। এটি নিজ কক্ষ পথে ১৮ ঘন্টায় একবার এবং তার নক্ষত্রকে ২.৮ দিনে একবার প্রদক্ষিণ করে। পৃথিবীর পৃষ্ঠ ঢাকা থাকে পানি ও গ্রেমেট দিয়ে। এবং এই গ্রহের পৃষ্ঠ ঢাকা থাকে হীরা‌ ও গ্রাফাইট দিয়ে। ফ্রান্সের ইনস্টিটিউট অফ রিচার্স অন এন্ড্রোফিজিক্স আ্যন্ড প্লেনেটোলোজীক গবেষক অলেভিয়া মুজিস বলেন,”আবিষ্কৃত গ্রহের ভরের অন্তত এক তৃতীয়াংশ যা পৃথিবীর ভরের তিনগুন যেটি হীরে দিয়ে গঠিত। যা অনায়াসে এটিকে একটি হীরের গ্রহ বলা যায়। তবে এটিতে আমাদের খুব বেশী আনন্দ করার সুযোগ নেই। কারণ এই গ্রহে আমাদের পৌঁছানো একেবারে অসম্ভব।তার কারন এই গ্রহ আমাদের পৃথিবী থেকে ৪০ আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত। যেখানে যাওয়ার মতো টেকনোলজি আমাদের মানবসভ্যতায় নেই।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker