ট্রেন্ডিং

কেনো ভ্রমণ করবেন

কর্মজীবনে একঘেয়েমি কাজে আছে ক্লান্তি। শরীরের ক্লান্তি দূর করতে কাজের ফাঁকে একটু সময় তো আপনাকে বের করে নিতেই হবে। আপনি জানেন কি শরীর ও মনকে চাঙা করতে ভ্রমণের জুড়ি নেই। ‘কেনো ভ্রমণ করবেন’ এই প্রশ্নের উত্তর তো আপনি ভ্রমণের মধ্য দিয়েই পেয়ে যাবেন। তার আগে আমিও একটু বলি।

আপনার পছন্দের কোনো জায়গা থেকে ঘুরে আসতে পারেবেন সহজেই। সেটা হতে পারে দেশে বা দেশের বাইরে। ঘোরাঘুরি আপনার দেহে ও মনে ভরে দেবে প্রশান্তিতে। এছাড়া ভ্রমণের কারণে বিভিন্ন জায়গায় নিত্যনতুন অভিজ্ঞতা হবে আপনার, যা পরবর্তী জীবনে অনেক কাজে দেবে।

১.দেহ ও মনে প্রশান্তি

প্রকৃতির মায়াভরা অবারিত সবুজ দেখতে কার না ভালো লাগে বলুন। ঘুরতে গিয়ে অনেক বিষয় আপনাকে মুগ্ধ করবে। আর দেহ ও মনে আনবে প্রশান্তির ছায়া। ফলে পরবর্তী কাজে আপনি অনেক বেশি উদ্যমী হবেন। প্রকৃতির ছন্নছায়া সবুজ শ্যামলী গাছপালার রং বেরঙের পশু পাখি, ফুল, নদী নালা পাহাড় পর্বত এর কাছে যেতে পারলেই আমাদের দেহ এবং মনের প্রশান্তি ঘটে।

২. অজানাকে জানতে

দেশে ও দেশের বাইরে বিভিন্ন জায়গায় ঘোরাঘুরির ফলে আপনার অনেক অভিজ্ঞতা হবে, যা কখনো আপনি অর্জন করেননি। এছাড়াও পৃথিবীতে কত কিছুই দেখার আছে আপনার।

৩. জ্ঞানের পাল্লা ভারি করবে

ভ্রমণ আপনার জ্ঞানের পাল্লা ভারি করবে। যেমন মিসরে নীল নদ হয়তো অনেক বইতে পড়েছেন। কিন্তু আপনি যদি একবার নীল নদ ঘুরে আসেন তবেই বুঝতে পারবেন চোখে দেখা অভিজ্ঞতা বইয়ের চেয়ে কতটা গুরুত্বপূর্ণ। প্রকৃতির কাছে শিক্ষার শেষ নেই। আমরা নদীর কাছে শিখতে পারি কেউ সাথে থাকুক বা না থাকুক আপন কাজে নিজের এগিয়ে যেতে হয় , যত কঠিন বাধা আসুক না কেন নদী যেমন এগিয়ে যায়। তাই ভ্রমণ পিপাসু বিশ্ববরণ্য বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তানার লেখা “সবার আমি ছাত্র ” কবিতা পড়লে বুঝতে পারবেন প্রকৃতির কাছে কত কিছু শিক্ষা নেয়া যায়। স্মৃতিশক্তি ও জ্ঞানার্জনে ভ্রমণের উপকারিতা, ভ্রমণের গুরুত্ব, ভ্রমণের প্রয়োজনীয়তা আছে।

৪. নতুন বন্ধু পাওয়ার সুযোগ

নতুন জায়গায় ভ্রমণ করলে অনেক ধরনের মানুষের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সুযোগ থাকে। ভ্রমণ করতে গিয়ে পথেঘাটে বিভিন্ন জনের সঙ্গে আপনার গড়ে উঠতে পারে ভালো বন্ধুত্ব। আপনি যত জায়গায় ঘুরবেন তত বেশি মানুষজন এবং জায়গার সাথে পরিচিত হতে পারবেন। এতে আপনার যোগাযোগের দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে, নতুন নতুন ভাষা শিখতে পারবেন, নতুন কালচার, রীতি, নীতি, শিখতে পারবেন।

৫. ভবিষ্যতের ভাবনা

একা ভ্রমণ করলে ভবিষ্যৎ নিয়ে অনেক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়ার সুযোগ পাবেন। নিজের প্রতি মনোনিবেশ করার সুযোগ পাবেন। একা ভ্রমণের মাধ্যমে নিজের অনেক গুণ আবিষ্কার করতে পারেন, যা আপনার কর্মদক্ষতা বাড়িয়ে দেবে বহুগুণে। নতুন অনেক ধরনের অভিজ্ঞতা অর্জনের কারণে ভবিষ্যৎ নিয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়ার দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে।

৬. পছন্দমতো কাজ করা

ভ্রমণ আপনাকে শিক্ষা দেবে কী করা উচিত আর কী করা উচিত নয়। এ ছাড়া নিজেকে ভালোবাসার মতো শিক্ষা পাবেন একা ভ্রমণের মাধ্যমে।

৭. নিজেকে সাহসী ও আত্মবিশ্বাসী করে তোলে

আমাদের জীবনে প্রত্যেকের সাহসী এবং আত্মবিশ্বাসী হওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সফলতার শীর্ষে পৌঁছানোর জন্য অসীম সাহসের প্রয়োজন হয়ে পড়ে। এমনকি সিংহ বনের রাজা হতে পেরেছে কেবলমাত্র তার মনের আত্মবিশ্বাস ও সাহসিকতার জন্য। বনে তো আরও অনেক শক্তিশালী জন্তু জানোয়ার আছে। কিন্তু তাদের সাহসে কুলোয় না বনের রাজা হওয়ার জন্য। আপনি যদি দেশ বিদেশ ভ্রমণ করেন আপনার মনের সাহস, আত্মবিশ্বাস, অনেকটাই বেড়ে যাবে, ভ্রমণের অভিজ্ঞতার মাধ্যমে আপনি আপনার জীবনে সফলতা পাবেন।

কী আর মনে প্রশ্ন জাগবে, ‘কেনো ভ্রমণ করবেন’?

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker