উচ্চ রক্তচাপের প্রতিকার

দিন দিন আমাদের মধ্যে অধিকাংশেরই একাকীত্ব থেকে বাড়ছে ডিপ্রেশন, বাড়ছে টেনশন, উড়ে যাচ্ছে ঘুম। আর এভাবেই শরীরে বাসা বাড়ছে নিরব ঘাতক উচ্চ রক্তচাপ। বর্তমান সমাজে উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর সংখ্যা নেহাতই কম নয়। সাময়িক পরিস্থিতিতে যেকোনো বয়সের মানুষের রক্তচাপ ঘটিত সমস্যা দেখা দিচ্ছে। কারণ হিসেবে রয়েছে তাদের ব্যাস্ত জীবন, রাস্তার ধারের ফাস্ট ফুড এবং সবথেকে প্রধান কারণ হলো অনিয়মিত জীবনশৈলী। এমনিতে তো রক্তচাপের রোগ খুবই সাধারণ দেখায় কিন্তু সেটার উপর নিয়ন্ত্রণ না রাখতে পারলে সমস্যা আরো জটিল আকার ধারণ করে যার ফলে হৃদজনিত সমস্যা, স্ট্রোক এবং কিডনির সমস্যা দেখা দিতে পারে। এখন অনেক চিকিৎসক ই নিয়মিত হারে রক্তচাপ পরীক্ষার কথা বলে থাকেন। উচ্চ রক্তচাপের প্রতিকার হিসেবে আমাদের কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

সচেতন থাকুন

১. হঠাৎ বিপদ এড়াতে উচ্চ রক্তচাপ বিষয়ে আগে থেকেই আপনাকে সচেতন থাকতে হবে। যাঁদের রক্তচাপ আছে ও ঔষুধ খান, তাঁরা নিয়মিত বাড়িতে রক্তচাপ মাপবেন। যদি অনিয়ন্ত্রিত মনে হয় তৎক্ষণাৎ চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে ঔষুধের মাত্রা পরিবর্তন করবেন।

২. মানসিক চাপ বা দুশ্চিন্তা থেকে একেবারে দূরে থাকুন। রাগ, উত্তেজনা, ভীতি অথবা মানসিক চাপের কারণেও রক্তচাপ সাময়িকভাবে বেড়ে যেতে পারে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। দীর্ঘসময় ধরে মানসিক চাপ অব্যাহত থাকলে দীর্ঘমেয়াদে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা তৈরি হতে পারে। তাই এখন থেকে সতর্ক হন।

৩. যাঁদের রক্তচাপ নেই, কিন্তু ঝুঁকি আছেন, যেমন বয়স চল্লিশের বেশি, ওজন বেশি, পারিবারিক ইতিহাস আছে ইত্যাদি তাঁরাও বছরে কয়েকবার রক্তচাপ পরিমাপ করবেন।

৪. খাবারে লবণের পরিমাণ কমিয়ে দিতে হবে। লবণের সোডিয়াম রক্তের জলীয় অংশ বাড়িয়ে দেয়, ফলে রক্তের আয়তন ও চাপ বেড়ে যায়।ধূমপান বর্জন করুন। নিয়মিত ব্যায়াম করুন আর সুষম ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস মেনে চলুন। পর্যাপ্ত ঘুম দরকার। তা না হলে ওষুধ সেবনের পরও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা মুশকিল।

৫. নিয়মিত ব্যায়াম বা কায়িক পরিশ্রম করতে হবে। নিয়মিত ব্যায়াম ও শারীরিক পরিশ্রম করলে হৃৎপিণ্ড সবল থাকে এবং ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে। যার ফলে রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে থাকে। মনে রাখবেন, বেশি ওজনের মানুষের মধ্যেই সাধারণত উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা দেখা যায়।

৬. খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন আনুন। অতিরিক্ত মাংস, মাখন বা তেলে ভাজা খাবার, চর্বিজাতীয় খাবার পরিহার করার চেষ্টা করুন।

উচ্চ রক্তচাপের প্রতিকার হিসেবে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ আপনার স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন বেছে নেওয়া। তাহলে ধীরে ধীরে নিজে থেকেই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম, পানি খাওয়া এবং মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকতে পারলেই আপনি উচ্চরক্তচাপ নিয়ে চিন্তা মুক্ত হতে পারবেন।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker