অল্পতেই রেগে যান? কীভাবে এই রাগ নিয়ন্ত্রণ করবেন?

আপনি কি অল্পতেই রেগে যান? অল্পতেই বিরক্ত হন? মুহূর্তের মধ্যেই মুড চেঞ্জ হয়? রেগে গেলে ভাঙচুর করেন? হাতের কাছে যা পান ছুঁড়ে মারেন, গলা ফাটিয়ে চিৎকার চেঁচামেচি করেন? কিন্তু কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করবেন এই রাগ?

রাগ একটি সহজাত আবেগ যা সবার মধ্যেই কমবেশি আছে। তবে কখনো কখনো মাত্রাতিরিক্ত ও অনিয়ন্ত্রিত রেগে গেলে মারাত্মক ক্ষতি করে ফেলতে পারেন নিজের এবং অন্যদের। তাই এমন রাগ অবশ্যই নিয়ন্ত্রণ করা উচিৎ। রাগ নিয়ন্ত্রণের সবচেয়ে কার্যকরী উপায়গুলো বলছি:

১. ধৈর্য ধরে শুনুন: কেউ কোনো কথা বললে তা ধৈর্য ধরে শোনার অভ্যাস করুন। প্রথমে শুনুন, এরপর কথাটি ভালোভাবে অনুধাবন করুন এবং সবশেষে উপযুক্ত উত্তর দিন, সঠিক সিদ্ধান্ত নিন।

২. স্থান পরিবর্তন: কারো প্রতি হঠাৎ রেগে গেলে তার সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করে সাময়িকভাবে ওই স্থান পরিবর্তন করুন। পছন্দের কোনো কাজ করা শুরু করুন। মন ভালো হয়ে যাবে।

৩. ব্যায়াম করুন: রাগ হলে ৫-১০ মিনিটের জন্য ব্যায়াম করুন। ব্যায়াম করলে আপনার মস্তিষ্কে বেশি পরিমাণে অক্সিজেন পৌঁছবে যা আপনার ব্রেনের সচলতা বৃদ্ধি করবে। সবমিলিয়ে আপনার মন প্রশান্ত হবে।

৪. রাগের মাথায় সিদ্ধান্ত নেবেন না: রাগের মাথায় কোনো সিদ্ধান্ত সঠিক হয় না। কারণ রাগের মাথায় আপনি ভালো মন্দ বিচারের ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেন। এ অবস্থায় সিদ্ধান্ত নিলে আপনার বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে। সবসময় মাথা ঠাণ্ডা করে সিদ্ধান্ত নিন যেনো পরে অনুতপ্ত হতে না হয়।

৫. নিঃশ্বাস নিন: গভীরভাবে শ্বাস গ্রহণ করুন, তারপর সেটি মুখ দিয়ে ছেড়ে দিন। এটি আপনার ভিতরে জমে থাকা রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করবে।

৬. ধূমপান, চা-কফি বাদ: ধূমপান, মাত্রাতিরিক্ত চা-কফি পান, মদ ও অন্যান্য নেশাজাতীয় বস্তু অনিয়ন্ত্রিত রাগের অন্যতম কারণ। এসব বদঅভ্যাস পরিহার করুন। আপনার রাগ অবশ্যই নিয়ন্ত্রণে আসবে।

৭. ঘুরে আসুন: রাগ নিয়ন্ত্রণের জন্য ঘোরাঘুরি বেশ ভালো একটি মাধ্যম। রাগ হোক আর মন খারাপ হোক, ঘুরতে যান প্রিয় কোনো জায়গায়। প্রকৃতির মাঝে ডুব দিন। দেখবেন, রাগ কমবে এবং মনও ভালো থাকবে।

৮. রাগ পুষে রাখবেন না: ক্ষমা করতে শিখুন। মনের মধ্যে রাগ পুষে রেখে সবসময় খারাপ কথা ভাবলে ক্ষতি আপনারই। নিজের এই এক পেশে চিন্তায় ডুবে থাকলে ভাল কিছু ভাবার ক্ষমতাটাই চলে যায়। কারো ওপর রাগ থাকলে শান্ত ও স্থির ভাবে তা প্রকাশ করুন। আপনার খারাপ লাগার জায়গাটা বলুন। আপনার রাগ কমে যাবে, মন হালকা হবে।

৯. অপমানজনক কথা পরিহার: রাগের মাথায় কখনো কাউকে অপমানজনক কিছু বলা যাবে না। যদি বলেও ফেলেন, তবে অবশ্যই সরি বলুন। তার সাথে শান্তভাবে ভালো আচরণ করুন।

১০. প্রিয়জনে সঙ্গে কথা বলুন: পরিচিত বা প্রিয়জনদের সঙ্গে কথা বলুন। তাদের থেকে পরামর্শ চান যে কী করে রাগ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেন। এসব চেষ্টা করার পরও যদি রাগ নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারেন তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

মনোবিজ্ঞানীরা বলছেন রাগ একটি স্বাভাবিক আবেগ। কিন্তু এই রাগের ক্ষতিকর প্রভাব পড়তে পারে ব্যক্তিজীবন, সামাজিক ও পেশাগত জীবনে। এমনকি স্বাস্থ্যের ওপরও রাগের নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। কীভাবে রাগ নিয়ন্ত্রণ করবেন তাতো জেনে নিলেন। এবার থেকে আর রাগ বয়ে নিয়ে বেড়াবেন না। সবসময় রাগ নিয়ন্ত্রণ করবেন।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker