যে গুনাহ আল্লাহ কখনো ক্ষমা করবেন না

মানুষ যতো বড় গুনাহ বা অপরাধই করুক না কেন, মহান আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইলে, তওবা করলে তিনি তা কবুল করেন। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তায়ালা তওবার নির্দেশ দিয়েছেন। তবে যে গুনাহ আল্লাহ কখনো ক্ষমা করবেন না সেটি কোন গুনাহ?

আল্লাহর সঙ্গে কাউকে শরিক করা সবচেয়ে বড় গুনাহ। আল্লাহ তাআলা শিরকের গুনাহ কখনো ক্ষমা করবেন না। যদি কোনো ব্যক্তি শিরককারী না হয় এবং সে যদি পাহাড়সম অপরাধও করে তবুও আল্লাহ পাহাড়সম ক্ষমা নিয়ে আসেন।। হাদিসের বর্ণনায় এমনটিই ঘোষণা করেছেন স্বয়ং নবীজি। হাদিসে এসেছে-

হজরত আবু যর ( রা ) বর্ণনা করেছেন নবিজি ( সা.) বলেছেন, আল্লাহ তায়ালা বলেন, কেউ একটি নেক আমল করলে এর বিনিময় তাকে দশগুণ বা আরো বেশি সওয়াব দেবো। কেউ যদি একটি গুনাহ করে তাহলে এর বিনিময় কেবল একটি গুনাহ লেখা হবে বা আমি তাকে ক্ষমা করে দেবো। আর কেউ যদি আমার কাছে পৃথিবী সমান গুনাহসহ উপস্থিত হয় এবং আমার সঙ্গে কাউকে শরিক না করে থাকে, তাহলে আমিও ঠিক পৃথিবীর সমান ক্ষমা নিয়ে তার কাছে এগিয়ে যাবো।’ (বুখারি, মুসলিম, মুসনাদে আহমদ)

তাহলে একবার ভেবে দেখুন, শিরকমুক্ত ব্যক্তির ক্ষমা কত সহজ। মানুষ শিরকের মাধ্যমে ইসলাম থেকে বের হয়ে আসে। এ জন্য আল্লাহ তায়ালা মানুষের কাছে যুগে যুগে অসংখ্য নবী-রাসুল এবং আসমানি কিতাব প্রেরণ করেছেন যাতে মানুষ তার সঙ্গে কাউকে শরিক না করে।

মনে রাখতে হবে, আল্লাহ তাআলা ৭ শ্রেণির মানুষকে ধ্বংস করে দেবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন বিশ্বনবি। তার মধ্যে প্রথম শ্রেণির মানুষ হলো তারা- যারা আল্লাহর সঙ্গে অন্য কাউকে শরিক করে। তাছাড়া আল্লাহ তাআলা বান্দার সব গোনাহ ক্ষমা করলেও শিরকের গুনাহ ক্ষমা করবেন না বলে কোরআনুল কারিমে সুস্পষ্ট ঘোষণা দিয়েছেন।

যারা আল্লাহর সঙ্গে শিরক করে তাদের মুশরিক বলে। আর মুশরিক চিরকাল জাহান্নামে থাকবে। কোরআনে এসেছে মুশরিকরা জাহান্নামে পৌঁছে বলবে, আল্লাহর শপথ! আমরা তো বিভ্রান্তিতেই ছিলাম, যখন আমরা তোমাদিগকে জগৎসমূহের প্রতিপালকের সমকক্ষ গণ্য করতাম (সূরা শুআরা-৯৭-৯৮)।

আমরা সকলেই জানি আল্লাহর ক্ষমা ও দয়া অসীম। তিনি আমাদের সকল গুনাহ ক্ষমা করে দিতে পারেন কিন্তু শিরকের গুনাহ না। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে সব কাজকর্মে অবশ্যই সচেতনতা বোধ জাগিয়ে রেখে চলতে হবে, যেন আমরা শিরকের মতো ভয়াবহ জঘন্য পাপ থেকে বেঁচে থাকতে পারি। সঠিক পথে চলার জন্য আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করতে হবে, আশ্রয় চাইতে হবে। আল্লাহ আমাদের হেফাজত করুক। আমিন।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker