ট্রেন্ডিং

ইমরান খান ৮ দিনের রিমান্ডে

আল-কাদির ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ইসলামাবাদ হাইকোর্ট (আইএইচসি) প্রাঙ্গণ থেকে গ্রেফতার হয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফের প্রধান (পিটিআই) ইমরান খান। সেই মামলায় বুধবার ইসলামাবাদ পুলিশ লাইনে গঠিত বিশেষ আদালতে তোলা হয় তাকে। ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিবিলিটি ব্যুরোর (এনএবি) আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার (১০ মে) তার রিমান্ড মঞ্জুর হয়। ইমরান খান ৮ দিনের রিমান্ডে যাচ্ছে। খবর দ্য ডনের।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, শুনানির শুরুতে এনএবি ইমরানের ১৪ দিনের রিমান্ড চায়। শুনানি শেষে বিচারক ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এ মামলার শুনানি হয়েছে ইসলামাবাদ পুলিশ লাইনে গঠিত বিশেষ আদালতে। গত সোমবার এ স্থানকে আদালতের মর্যাদা দেওয়া হয়। ইমরান খানের মামলার শুনানিতে বিচারক হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন মোহাম্মদ বশির।

শুনানির শুরুতে এনএবি ইমরানের ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করার জন্য আদালতকে অনুরোধ করলে এর বিরোধিতা করেন পিটিআই প্রধানের আইনজীবী খাজা হারিস। আইনজীবী বলেন, ‘আল-কাদির ট্রাস্ট মামলাটি ব্যুরোর পরিধির মধ্যে পড়েনি। এমনকি এনএবি এখনো তদন্ত প্রতিবেদন শেয়ারও করেনি।’খাজা হারিস বলেন, ‘প্রত্যেকেরই সুষ্ঠু বিচারের অধিকার আছে। এই শুনানি একটি খোলা আদালতে হতে পারত। আল-কাদির ট্রাস্টের আওতায় যে বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সেখানে বিনামূল্যে মানুষ শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে।’এনএবির আইনজীবী বলেন, ‘যখন ইমরান খানকে গ্রেফতার করা হয় তখন তাকে গ্রেফতারি পরোয়ানার কাগজ দেখানো হয়েছিল।’ তদন্ত প্রতিবেদনের জবাবে এনএবির আইনজীবী বলেন, ‘যথাযথ কাগজপত্র প্রয়োজনে জমা দেওয়া হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এটি একটি দুর্নীতির মামলা, যার প্রমাণ দিয়েছে ব্রিটিশ ন্যাশনাল ক্রাইম এজেন্সি (এনসিএ)।’

এদিকে, বুধবার পিটিআই’র ভাইস চেয়ারম্যান আসাদ উমরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের বিশেষ বাহিনী ‘অ্যান্টি টেরোরিজম স্কোয়াড’। এদিন ইসলামাবাদ হাইকোর্টের বার অ্যাসোসিয়েশনের অফিসের বাইরে ইমরানের সঙ্গে দেখা করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন আসাদ উমর। দেখা করার জন্য তিনি আবেদনও করেছিলেন। ঠিক সেসময় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

আসাদকে গ্রেফতারের সময় পিটিআই’র আইনজীবীরা পুলিশকে বাধা দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন। এ সময় পিটিআই’র ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মাহমুদ কোরেশিকেও গ্রেফতারের চেষ্টা করলে আইনজীবীসহ দলের অন্য নেতাকর্মীরা তাকে গ্রেফতারের হাত থেকে রক্ষা করেন।

সবশেষে শুনানির সময় ইমরান খান আদালতকে বলেন, ‘যখন আমাকে গ্রেফতার করা হয়, তখন পরোয়ানা দেখানো হয়নি। ব্যুরোর অফিসে নেওয়ার পর সেটি দেখানো হয়েছে। ২৪ ঘণ্টা ধরে আমি বাথরুমে যাইনি। আমার একজন চিকিৎসকের প্রয়োজন।

লাহোরে সেনানিবাসে হামলা চালিয়েছেন ইমরান খানের সমর্থকেরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে ইসলামাবাদ, পেশোয়ারসহ বিভিন্ন শহরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

এছাড়া কর্তৃপক্ষ দেশের সকল স্কুল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে। টুইটার ফেসবুকসহ সকল সামাজিক মাধ্যমে প্রবেশ সীমিত করেছে।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker