যুক্তরাষ্ট্র থেকে সয়াবিন তেল কিনছে বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্র থেকে সয়াবিন তেল কিনছে বাংলাদেশ। ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) জন্য যুক্তরাষ্ট্রের এক কোম্পান থেকে এক কোটি ১০ লিটার সয়াবিন তেল কিনছে সরকার। একই সঙ্গে দেশীয় একটি প্রতিষ্ঠান থেকে ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনছে সংস্থাটি।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে বুধবার (২৪ মে) অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় তেল কেনার এ প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সাঈদ মাহবুব খান সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

এদিকে দেশীয় প্রতিষ্ঠান সিটি এডিবল অয়েল কোম্পানি থেকে এই ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কেনা হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে সয়াবিন তেল আমদানি করা হলেও ভোজ্যতেলের উৎস হচ্ছে মালয়েশিয়া। অর্থাৎ মালয়েশিয়া থেকে এই সয়াবিন তেল সরবরাহ করা হবে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক সূত্রে জানা যায়, প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম ধরা হয়েছে ১ দশমিক ১০১ ডলার। আর প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাফতরিক প্রাক্কলিত দর হচ্ছে ১ দশমিক ২৭ ডলার। সে হিসাবে মূল্যায়ন কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী প্রতি লিটার সয়াবিন তেল ক্রয়মূল্য দাফতরিক প্রাক্কলিত দরের চেয়ে দশমিক ১৬৯ ডলার কম পড়ছে। ১ কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল আমদানিতে মোট ব্যয় হবে ১ কোটি ২১ লাখ ১১ হাজার ডলার। বাংলাদেশী মুদ্রায় ১২৯ কোটি ৫৮ লাখ ৭৭ হাজার টাকা। তাহলে এবার প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম পড়বে ১৪০ টাকা ১৬ পয়সা।

গত ১৭ই মে অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাসেনচুয়েট টেকনোলজি ইনকরপোরেশন থেকে ১২ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন চিনি কেনার অনুমোদন দেয়া হয়। এতে খরচ ধরা হয়েছে ৬৬ কোটি ২৭ লাখ ৩১ হাজার ২৫০ টাকা। প্রতি কেজি চিনির দাম ধরা হয় ৮২ টাকা ৮৫ পয়সা।

এর আগে গত ৯ মে অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় সিঙ্গাপুরের স্মার্ট মেট্রিক্স প্রাইভেট লিমিটেড থেকে ১২ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন চিনি কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়। সে সময় খরচ ধরা হয়েছিল ৬৬ কোটি ৭৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা। প্রতি কেজি চিনির দাম ধরা হয় ৮২ টাকা ৯৪ পয়সা।

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker