এশিয়ার 'লৌহ মানবী' আখ্যা পেলেন শেখ হাসিনা

এবার এশিয়ার ‘লৌহ মানবী’ আখ্যা পেলেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে ক্ষমতায় থাকা নারী সরকার প্রধান। একই সাথে তিনি দীর্ঘ সময় রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকা নারী এবং পুরুষদের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য একজন। এসব বিবেচনায় এশিয়ার ‘আয়রন লেডি’ হিসেবে উল্লেখ করেছে ব্রিটিশ সাময়িকী দ্য ইকোনমিস্ট। শেখ হাসিনার সাক্ষাৎকারের ওপর ভিত্তি করে একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে গণমাধ্যমটি। এতে মার্গারেট থ্যাচার ও ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে তাকে তুলনা করা হয়েছে।

সাক্ষাতকারে শেখ হাসিনা বলেন, আমি এ দেশটিকে একটি ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত দেশ হিসেবে গড়তে চাই। এছাড়াও দুর্নীতি সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, হয়তো নিচের স্তরে কিছুটা দুর্নীতি আছে। তবে এখন খুব একটা নেই। কেউ যদি এমনটা করার সাহস করে, তবে আমি ব্যবস্থা নেব।

‘এশিয়ার আয়রন লেডি শেখ হাসিনা’ শিরোনামে প্রকাশিত ওই সাক্ষাৎকারে পচাত্তরের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের হারানোর পর শেখ হাসিনার সংগ্রাম ও দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার যেই প্রচেষ্টা সেগুলো তুলে ধরা হয়। এশিয়ার ‘লৌহ মানবী’ আখ্যা পাওয়ার যোগ্যতা শেখ হাসিনারই ছিলো।

সাক্ষাতকারের সময় পচত্তরের নির্মম হত্যাকাণ্ডের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তারা আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, আমার দুই ভাইকে, আমার মাকে, আরেক ভাইকে হত্যা করেছে যার বয়স মাত্র দশ বছর! আমার দুই বোন জামাই (কাজিন), আমার একমাত্র চাচা, একজন প্রতিবন্ধী, তাকেও হত্যা করেছে।’ এসব কথা বলার সময় তার চোখ অশ্রুতে ভিজে যায়।

ইকোনমিস্ট এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শক্তহাতে শেখ হাসিনার ক্ষমতা ধরে রাখায় লাভবান হয়েছে বাংলাদেশ। অবকাঠামোগত বিনিয়োগসহ এমন কিছু নীতি তিনি প্রণয়ন করেছেন, যার মাধ্যমে প্রবৃদ্ধির গতি বজায় ছিল। দুর্বল কোনও সরকারের পক্ষে এটা করা হয়তো সম্ভব হতো না।

শেখ হাসিনা বলেছেন, অদূর ভবিষ্যতে অবসরে যাওয়ার কোনও পরিকল্পনা করছেন না তিনি। সরকারের ভিশন-২০৪১’ পরিকল্পনার বাস্তবায়ন শেষ পর্যন্ত দেখতে পাবেন না সেটাও স্বীকার করে দলে তার উত্তরসূরীর বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি যদি না থাকি, তাহলে জানি না ক্ষমতায় কে আসবে।’

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker